আমলকী খেলে কী হয়?

চুল পেকে যাওয়া রোধ করে আমলকির তেল। চুলের আগা ফেটে যাওয়া, পেকে যাওয়া প্রতিরোধে আমলকি ভীষণ কার্যকরী । এছাড়া আমলকিতে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল গুণাগুণ থাকে যা চুলে খুশকি, উঁকুনের মতো একাধিক সমস্যাররোধ করে।

আমলকি মাঝ বরাবর কেটে রোদে শুকিয়ে নিন। শুকিয়ে যাওয়া আমলকি ভালোভাবে গুড়ো করে তেলের সঙ্গে মিশিয়ে আমলকির তেলকে কিছুক্ষণ ধরে গরম করুন।

চুলের পুষ্টি এবং চুলকে শক্তিশালী করে আমলকি। আমলকি চুলের কন্ডিশনার হিসাবেও কাজ করে। যার ফলে চুল আকর্ষণীয় হয়। আমলকি চুলের খুসকি দূর করে।

মাথার ত্বক পরিষ্কার করার জন্য আমলকির রস খুবই চমৎকার। এটি মাথার খুলি এবং চুল চকচকে করে তোলে। আয়ুর্বেদ মতে, অতিরিক্ত চুল পড়া রোধ করে আমলকি।

আমলকির রস ত্বক এবং চুল উভয়ের জন্য একটি উপকারী টনিক হিসাবে কাজ করে। এটি চুলকে শক্তিশালী করে তোলে।

যারা ডায়বেটিসে ভুগছেন তাদের জন্য আমলকি খুব উপকারি। আমলকিতে প্রচুর ভিটামিন সি রয়েছে। যা অগ্ন্যাশয়ের কোষকে সারিয়ে তোলে। এর সাথে সাথে এটি ইনসুলিন তৈরি করা কোষগুলোর ক্ষয় রোধ করে। আমলকিতে ক্রোমিয়াম রয়েছে যা শরীরে শর্করার বিপাককে নিয়ন্ত্রণ করে।

আমলকিতে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি রয়েছে। এ কারণে আমলকি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্য ভালো করে। এছাড়া গ্যাসের সমস্যা কমায় আমলকি। আমলকি আপনার শরীরে বয়সের ছাপ কমায়।

Livereportbd

Latest growing bangla news portal titled Livereportbd offers to know Sports, Entertainment, Education, Lifestyle, National, World, etc.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *