চাকরির ইন্টারভিউয়ের জন্য সেরা প্রস্তুতি কী হতে পারে?

প্রায় যেকোনো চাকরির ক্ষেত্রেই ইন্টারভিউ এর সময় আপনার প্রথম ইম্প্রেশন অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটা ভূমিকা পালন করে। আজকাল যেকোন চাকরিতেই নিয়োগ দেয়ার প্রক্রিয়া যথেষ্ট সংবেদনশীল ও সময়সাপেক্ষ। একটি ইন্টারভিউ প্রক্রিয়ার চূড়ান্ত উদ্দেশ্য হলো আপনি যে একজন পেশাদারী ব্যক্তি এবং নিজের দক্ষতা সম্পর্কে আপনার আত্মবিশ্বাস রয়েছে সেটি নিয়োগকারীর সামনে তুলে ধরা। ইন্টারভিউ প্রক্রিয়ায় ছোট ছোট প্রত্যেকটি ব্যাপারই অনেক বড় প্রভাব ফেলতে পারে, তাই আগে থেকেই প্রস্তুত থাকা প্রয়োজন।

ইন্টারভিউতে পৌঁছে প্রথমেই যা বলা যেতে পারে

যেকোনো ইন্টারভিউতে পৌঁছে প্রথমেই যার সাথে দেখা হবে তাকে কীভাবে নিজের পরিচয় দেবেন সেই ব্যাপারে প্রস্তুতি নেয়া আপনার প্রথম কাজগুলোর মধ্যে একটি। রিসিপশনিস্টের খোঁজ করুন, কিংবা যিনি আপনাকে অভ্যর্থনা জানাচ্ছেন তাকে নম্রতার সাথে নামসহ আপনার আগমনের উদ্দেশ্যটি জানান।

এইচআর কিংবা ইন্টারভিউ প্যানেলের সাথে সাক্ষাৎকার পর্ব

যখন এইচআর আপনাকে অভ্যর্থনা জানাতে আসবেন, তখন চেয়ার থেকে উঠে দাঁড়িয়ে পড়ুন এবং সমান উৎসাহে তার সাথে হাত মেলান। হাসিমুখে আপনার নাম বলুন এবং সাক্ষাতের জন্য আনন্দ প্রকাশ করুন। আপনি যদি একটি ইন্টারভিউ প্যানেল সমৃদ্ধ রুমে প্রবেশ করেন, তাহলে প্রথমে ভেতরে ঢোকার জন্য অনুমতি প্রার্থনা করুন, হাসিমুখে নিজের পরিচয় দিন এবং সবাইকে একই সাথে অভিবাদন জানান।

পরিচয় পর্বটি সংক্ষিপ্ত ও অর্থবহ করার চেষ্টা করুন

প্রথম পরিচয়টা সংক্ষিপ্ত ও আন্তরিক রাখার চেষ্টা করুন। আপনাকে প্রথম যে প্রশ্নটি করা হবে তা হতে পারে “আপনার ব্যাপারে আমাদের কিছু বলুন।” এই প্রশ্নের জবাবে আপনার আবেদন করা পদটির জন্য আপনার দক্ষতাগুলোকে লক্ষনীয় করে তোলার এবং পাশাপাশি আপনার ব্যক্তিত্বকে নম্রতার সাথে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করুন। আপনার আবেদন করা পদটির সাথে আপনার দক্ষতা কিংবা শিক্ষাগত যোগ্যতার সমন্বয় সাধন করুন এবং কীভাবে আপনি এই পদে তাদের চাহিদা পূরণ করার জন্য উপযুক্ত তা প্রকাশ করার সর্বোচ্চ চেষ্টা করুন।

আপনার যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার দিকে ফোকাস করুন

আপনি যদি একজন সদ্য গ্র্যাজুয়েট হন তাহলে অবশ্যই আপনাকে আপনার যোগ্যতা ও কোয়ালিফিকেশনের দিকে বিশেষভাবে ফোকাস করতে হবে। আর তা না হলে যে ব্যাকগ্রাউন্ডে কাজ করার যে অভিজ্ঞতা আপনার রয়েছে সেগুলোর দিকে ফোকাস করুন। এসবের মধ্যে কিছু অপেশাদারী তথ্য যেমন আপনার শখ ও কৌতুহল ইত্যাদি দিকগুলোও অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন।

ফলো-আপ প্রশ্নের জন্য প্রস্তুতি নিন

ইন্টারভিউ এর সময় আপনি নিয়োগকারীদের আপনার ব্যাপারে যেসব তথ্য দিচ্ছেন সেগুলো মনে রাখা খুবই জরুরি এবং তার থেকে যে সব ফলো-আপ প্রশ্ন তারা করতে পারেন সে ব্যাপারেও প্রস্তুতি নিতে হবে। উদাহরণস্বরূপ, আরো গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে যখন আপনি নানা রকম প্রজেক্ট, টেকনিক্যাল দক্ষতার সাথে আপনার সংশ্লিষ্ট থাকার কথা শেয়ার করবেন, তখন সে ব্যাপারেও ফলো-আপ প্রশ্নে কী রকম জবাব দেবেন সে ব্যাপারেও প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে হবে। নিজে থেকে কিছু প্রশ্ন করুন, এতে করে চাকরিটির ব্যাপারে আপনার আগ্রহ প্রকাশ পাবে।

উত্তম ব্যবহার সব সময়ই কার্যকরী ও আকাঙ্ক্ষিত

আপনার শারীরিক ভঙ্গিমা, কথা বলার ধরণ, পোশাক আশাক ইত্যাদি সব আচরণবিধি আপনার ইন্টারভিউয়ের উপর প্রভাব ফেলতে পারে, তাই এই জিনিসগুলোর প্রতি আগে থেকেই যত্নবান হোন। আত্মসম্মানের ব্যাপারে কোন রকম আপোষ করবেন না, কিন্তু পাশাপাশি পেশাদারী এবং উত্তম ব্যবহার বজায় রাখার চেষ্টা করুন। হাসিমুখে আপনার ইন্টারভিউটি শেষ করুন এবং এই দারুণ সুযোগটির জন্য তাদের ধন্যবাদ দিন!

ইন্টারভিউয়ের নানা ধাপ সহ নিয়োগদানের পদ্ধতিতে অনেক গুলো পদক্ষেপ রয়েছে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হচ্ছে ইন্টারভিউ প্রার্থীদের উচিত বিভিন্ন রকম ইন্টারভিউ টিপস চর্চা করার মাধ্যমে নিজেদেরকে এই চ্যালেঞ্জটির জন্য প্রস্তুত করে নেয়া। অতএব, মাথা ঠাণ্ডা রাখুন আর আত্মবিশ্বাসী হোন!

Livereportbd

Latest growing bangla news portal titled Livereportbd offers to know Sports, Entertainment, Education, Lifestyle, National, World, etc.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *