পরীক্ষায় সফল ভারতের অতি শক্তিশালী মিসাইল!

৭০ কিলোমিটার দূরে শত্রুপক্ষের এয়ারক্রাফ্টকে মুহূর্তে ধ্বংস করে দিতে পারে৷ ১৫ কিলোগ্রাম মারাত্মক বিস্ফোরকে ঠাসা৷ এ হেন এয়ার টু এয়ার ক্ষেপণাস্ত্র ‘অস্ত্র’-এর সফল পরীক্ষা করল ভারত৷ যার নির্যাস, ভারতীয় বায়ুসেনা আরও শক্তিশালী হল নয়া অস্ত্রে৷

Sukhoi-30 MKI যুদ্ববিমান থেকে মিসাইলটি লঞ্চ করা হয়৷ কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রকের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘একাধিক র‌্যাডার, ইলেক্ট্রো-অপটিকাল ট্র্যাকিং সিস্টেম ও সেন্সর ট্র্যাকড এই মিসাইলটি সফল ভাবে টার্গেটকে ধ্বংস করতে পেরেছে৷’

সম্পূর্ণ ভারতে তৈরি এয়ার-টু-এয়ার মিসাইল ‘অস্ত্র’ ৭০ কিমি দূরে এয়ারক্রাফ্ট বা ড্রোনকে ধ্বংস করতে পারে৷ ঘণ্টায় ৫ হাজার ৫৫৫ কিমি বেগে গিয়ে টার্গেটকে ধ্বংস করবে এই ক্ষেপণাস্ত্র৷ ৫০টি সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার সঙ্গে মিলে মিসাইলটি তৈরি করেছে ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (ডিআরডিও)৷ Sukhoi-30 MKI যুদ্ধবিমান থেকে মিসাইলটি ছোড়া যাবে৷

References : DRDO

স্নানের ভিডিও তুলে ব্ল্যাকমেল, এরপর চলে লাগাতার ধর্ষণ !

লখনউ: কয়েকদিন আগে বিজেপি নেতা স্বামী চিন্ময়ানন্দের বিরুদ্ধে এখ বছর ধরে লাগাতার ধর্ষণে করার অভিযোগ জানিয়েছিল উত্তর প্রদেশের শাহাজানপুরের আইনের এক ছাত্রী ৷ শনিবার আরও একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে আনল ওই ছাত্রী ৷

আইনের ওই ছাত্রী জানান, স্নান করার সময় তার ভিডিও রেকর্ড করেন প্রাত্তন সাংসদ এবং পরে তা দেখিয়ে ব্ল্যাকমেল করত ৷ স্নান করার ভিডিও প্রকাশ করে দেওয়ার হুমকি দিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে ৷ শুধু তাই নয় এমনকি ধর্ষণের ভিডিও রেকর্ড করেন অভিযুক্ত ৷

নির্যাতিতার বাবা সম্প্রতি ৪৩টি ভিডিও ক্লিপ বিশেষ তদন্তকারী টিম সিটের কাছে জমা দিয়েছে ৷ এছাড়াও তথ্য প্রমাণ লোপাট করার অভিযোগও জানিয়েছেন অভিযুক্ত সাংসদের বিরুদ্ধে ৷

তিনি আরও জানিয়েছেন, চিন্ময়ানন্দ তার মেয়েকে ব্ল্যাকমেল করে একাধিকবার ধর্ষণ করে ৷ এরপর তার মেয়ে ক্যামেরা লুকিয়ে রেখে সমস্ত ঘটনাটি রেকর্ড করেছে ৷

সূত্রের খবর অনুযায়ী, সিট সমস্ত ভিডিও ও অন্যান্য তথ্য ফরেন্সিক টিমের কাছে জমা দিয়েছে ৷

সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে আচমকাই আক্রমণ চালায় পাকিস্তানি সেনারা !

#শ্রীনগর: শনিবার নিয়ন্ত্রণরেখায় সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছিল পাকিস্তান ৷ আগ্রাসন দেখালেও শেষমেষ পিছু হঠতে বাধ্য হয় পাক সেনারা ৷ ভারতীয় সেনাদের সামনে সাদা পতাকা দেখাতেও বাধ্য হলেন তারা ৷ সংবাদ সংস্থা ANI সূত্রে পাওয়া একটি ভিডিও এমনই দৃশ্য দেখা গিয়েছে ৷

আচমকা পাকিস্তানের তরফ থেকে ফাইরিং শুরু হওয়ায় তার সামনে চলে আসে স্কুলের শিশুরা ৷ রাস্তায় আটকে পড়া শিশুদের উদ্ধার করে ভারতীয় সেনার জওয়ানরা ৷ বালাকোটের সরকারি স্কুলে আটকে পড়া বাচ্চাদের উদ্ধার করে সেনার গাড়িতে তাদের ফাইয়ারিং রেঞ্জ থেকে দূরে সুরক্ষিত জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয় ৷ স্কুলের শিশুদের বাঁচানোর একটি ভিডিও সামনে এসেছে ৷

গত ১০-১১ সেপ্টেম্বর হাজিপুরে নিয়ন্ত্রণরেখায় সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘন করে পাক সেনারা ৷ তৎক্ষণাৎ পাল্টা জবাব দেন ভারতীয় সেনারা ৷ দু’পক্ষের তীব্র গোলাগুলি বর্ষণে মৃত্যু হয় পাক অধিকৃত কাশ্মীরে মোতায়েন এক পাক সেনার ৷ নিহতের নাম গুলাম রসুল ৷ তার দেহ উদ্ধারের চেষ্টায় নিকেশ আরও এক পাক জওয়ান ৷

তথ্যসূত্র: ANI